কাঁচেরকোলে ইতালিসহ বিদেশ ফেরত ৬: মানছে না হোম কোয়ারেন্টাইন

কাঁচেরকোল ইউনিয়নে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ সতর্কতায় ইতালিসহ বিদেশ ফেরত ছয় প্রবাসী বাংলাদেশিকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশনা থাকলেও তারা তা মানছেন না। জানা গেছে, গত কয়েকদিনে কাঁচেরকোল গ্রামে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হওয়া কিছু দেশ থেকে এসেছেন ৪ জন প্রবাসী, জাঙ্গালীয়া গ্রামে এসেছেন ১ জন ও মির্জাপুর গ্রামে এসেছেন ১ জন।

তাদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার কথা থাকলেও তারা তা না মেনে দেদারসে ঘোরাঘুরি করছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্থানীয় প্রশাসন বলছে, বিদেশ ফেরত প্রবাসীরা বাড়িতে এলেই আমরা তৎপর রয়েছি। তাদেরকে কেউ বাড়ির বাইরে দেখলে আমাদের কাছে অভিযোগ দেওয়ারও নির্দেশনা দেয়া আছে।

এদিকে, সিঙ্গাপুর থেকে মির্জাপুর গ্রামে এক প্রবাসী এসেছেন মাত্র তিন দিন আগে। তিনি এসেই হোম কোয়ারেন্টাইনের নিয়মনীতি না মেনেই বাইরে ঘুরে বেড়াচ্ছে বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেছেন। ইতালি থেকেও কেউ কেউ এসেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া যায়।     

তবে বিদেশ ফেরত তাদেরকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন কাঁচেরকোলে ইউনিয়নের দায়িত্বে থাকা শৈলকুপা উপজেলা স্বাস্থ্য সহকারী গুলশান আরা পারভীন।

তিনি জানান, দেশে ফিরেই যাতে কেউ প্রকাশ্যে ঘুরে না বেড়ান সেজন্য তাদেরকে সতর্ক করা হয়েছে। ইউনিয়নে বিদেশ ফেরত ওই ৬ ব‌্যাক্তির ওপর স্বাস্থ‌্য বিভাগের পক্ষ থেকে নজরদারি রাখা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

এদিকে, ঝিনাইদহ জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে বাজার ঘাটে অতিরিক্ত লোক সমাগম না করা ও চায়ের দোকানে টেলিভিশন ও ক্যারামবোর্ডে বন্ধের জন্য এলাকাবাসীর প্রতি অনুরোধ জানিয়ে মাইকিং করেছে।     

কাঁচেরকোল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাড. সালাহ্উদ্দিন জোয়ার্দার মামুন বলেন, করোনাভাইরাস মোকাবেলায় ইউনিয়নে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। যারা বিদেশ থেকে গ্রামের বাড়িতে এসেছেন তাদেরকে সচেতন করা হচ্ছে, তারা যেন বাইরে না বের হন। এছাড়া বিদেশ ফেরতদের বাড়িতেও যেন বাইরের কোনও মানুষ না প্রবেশ করে সে ব্যাপারেও সতর্ক করা হয়েছে। বাজার-ঘাটে প্রয়োজন ছাড়া কেউ যাতে না যায় সে ব্যাপারেও সতর্ক করা হয়েছে।

তিনি বলেন, বিদেশ ফেরত গোপনে ইউনিয়নের যেকোনো বাড়িতে কেউ যদি অবস্থান করে তাহলে আমাদেরকে তথ্য দিন। আমরা তথ্যদাতার পরিচয় গোপন রাখবো।

মন্তব্য করুন